গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স এর সুবিধা গুলো জানুন

আপনারা যারা গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স পলিসি করতে চাচ্ছেন তাদের মধ্যে অনেকে জানতে চাচ্ছেন গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স এর সুবিধা গুলো কি কি।

গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড স্কায়ার, ব্র্যাক এবং এপেক্স কোম্পানির মালিকানাধীন একটি বীমা কোম্পানি। তাই আপনারা যারা গার্ডিয়ান বীমা কোম্পানিতে বীমা করতে চাচ্ছেন তারা নির ভয়ে বীমা করতে পারেন।

গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে আপনারা  পলিসি অনুযায়ী বীমা করবেন এবং বীমার মেয়াদ শেষ হওয়ার এক মাসের মধ্যে সম্পূর্ণ টাকা পেয়ে যাবেন।

আপনারা যারা নতুন Guardin life insurance limited এ বীমা করতে চাচ্ছেন এবং বীমা পলিসি এর সুবিধা গুলো জানতে চাচ্ছেন তারা সম্পূর্ণ আর্টিকেল মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স এর সুবিধা গুলো কি কি

গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্সের অনেক গুলো সুবিধা রয়েছে যা আপনার এবং আপনার পরিবারের আর্থিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। আপনার নিজের জীবনের লক্ষ্য এবং আপনার পরিবারের ভবিষ্যৎ নির্ধারনে লাইফ ইন্সুইরেন্স এক পথ প্রদর্শের ভূমিকা পালন করে।

একজন ৩০ বছরের মাঝে লাইফ ইন্সুইরেন্স করার মধ্যে নিজের এবং তার পরিবারের ভবিষ্যৎকে সামনের দিকে অনেকটা এগিয়ে নিতে পারে।

৩০ বছরের মাঝ বয়সে গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স করার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা নিচে উল্লেখ করা হয়েছে।

(১) জীবনের ঝুঁকির ক্ষেত্রে নিরাপত্তা

আমাদের জীবনে বিপদ বা সমস্যা কখনো বলে আসে না। বীমাগ্রহীতার অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটরায় তার পরিবারের ভবিষ্যৎতের উপরে মেনে আসতে পারে চরম আর্থিক দুর্ভোগ। যা মোকাবিলা লাইফ ইন্সুরেন্স গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

আমরা ৩০ বছর বয়সের মধ্যে লাইফ ইন্সুরেন্স করার মাধ্যমে নিজের এবং পরিবারের আর্থিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারি। যা আপনার অবর্তমানে পরিবারের নিরাপত্তা ও স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবনযাপন নিশ্চিত করে।

(২) লোন গ্রহণের সুযোগ

বীমাকারী ব্যাক্তি নিজের প্রয়োজনে লোন গ্রহণ করতে পারবেন। চরম আর্থিক প্রয়োজনে বীমাকারী বীমা প্রতিষ্ঠান লোন দিয়ে সহায়তা করবে। লোনের পরিমান নির্ভর করবে মূলত বীমা পলিসির উপর।

নিজেকে সফল উদ্যোক্তা হিসাবে গড়ে তুলতে ৩০ বছরের মাঝে লোন গ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। মনে রাখবেন গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স থেকে এই লোন নেওয়ার সুযোগ সব থেকে বেশি থাকে।

(৩) দীর্ঘমেয়াদি সঞ্চয়

প্রত্যেকের ভবিষ্যৎ গুছানোর জন্য একটা দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনার প্রয়োজন হয়। ৩০ বছর বয়সের মাঝে করা লাইফ ইন্সুইরেন্স আপনাকে অর্থ সংরক্ষণ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

এই সময়কালে অর্থ সঞ্চয় করা একটি আদর্শ সময়, যা আপনার অবসর পরবর্তী জীবনে আর্থিক চাহিদা পূরণ করতে সহায়তা করে। তাছাড়া আপনার পরিবারের ভবিষ্যৎ লক্ষ্য পূরণে কাজে আসবে।

(৪) বিনিয়োগ রিটার্ন

জীবন বীমায় বীমাকৃত ব্যাক্তি পলিসির নগদ মূল্য জমা দেওয়ার পর বীমার মেয়াদ শেষে বোনাস সুবিধা পেয়ে থাকেন। বিনিয়োগকৃত অর্থ পলিসির মেয়াদ শেষে বীমাকৃত ব্যাক্তিকে রির্টান দেওয়া হয়।

(৫) কর সুবিধা

জীবন বীমায় আপনি কর সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। আপনাকে বীমার আয় বা পলিসি লোনের ক্ষেত্রে কোন ধরনের কর প্রদান করতে হবে না। তাছাড়া বীমার পলিসি পরিবর্তনের ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত কর আরোপ করা লাগে না।

৩০ বছরের মাঝে জীবন বীমা করলে আপনার চাকরির পুরো সময় জুড়ে কর সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। তাছাড়া আপনি যদি লোন নিকে চান বা নিয়ে থাকেন তাহলে উক্ত লোনের উপর কর প্রদান করা লাগবে না।

শেষ কথা

আজকে আমরা জানলাম ৩০ বছরের মাঝে গার্ডিয়ান লাইফ ইন্সুরেন্স এর সুবিধা গুলো সম্পর্কে। এই বিষয় কোনো প্রশ্ন জানার থাকলে নিচের কমেন্টে লিখে জানাবেন এবং লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *