বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক ২০২৪

আপনারা যারা ব্যাংক থেকে লোন নিতে চাচ্ছেন তাদের মধ্যে অনেকে জানতে চাচ্ছেন বাংলাদেশে বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক গুলো।

বর্তমানে বাংলাদেশে এমন অনেক ব্যাংক রয়েছে যে ব্যাংক গুলো থেকে ঋণ নেওয়ার জন্য কোনো প্রকার জামানত লাগবে না। অর্থ্যাত ব্যাংক আপনাকে বিনা জামানতে ঋণ (loan) দিবে।

ছোট, কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএনএমই) পর্যায়ের ব্যবসা থাকলে বিনা জামানতে কম সুদে ঋণ দিবে বাণিজ্যিক ব্যাংক গুলো। বিনা জামানতে ঋণের গ্যারান্টার বা জামিনদার থাকবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

ব্যবসার সম্ভাবনা রয়েছে কিন্তু জামানতের অভাবে ব্যবসা করতে পারছেন না, বা ব্যবসা বন্ধ করে দিচ্ছেন এমন সব উদ্যোক্তাদের বিনা জামানতে স্বল্প সুদে ও সহজ শর্তে লোন দিবে বাংলাদেশের সরকারি এবং বেসরকারি ব্যাংক গুলো।

২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে পাইলট কর্মসূচি হিসেবে ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপর ২০২২ সালের ডিসেম্বর থেকে পুরোপুরি কার্যক্রম আরম্ভ হয়।

চলুন নিচে থেকে জেনে নিবো বাংলাদেশের কোন সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংক গুলো স্বল্প সুদে ও সহজ শর্তে এবং বিনা জামানতে ঋণ বা লোন (loan) দিবে।

বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক ২০২৪

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে চুক্তি করা ৪৩ টি বাণিজ্যিক ব্যাংক বিনা জামানতে ঋণ দিবে। এই ব্যাংক গুলোর মধ্যে সরকারি ব্যাংক গুলো হলো: সোনালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, রুপালী ব্যাংক, কৃষি ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক।

এছাড়া বেসরকারি ব্যাংক গুলো মধ্যে রয়েছে: ইসলামী ব্যাংক, এবি ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, ট্রাষ্ট ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, সাইথ বাংলা ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, এনআরবি ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক, সীমান্ত ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, এগ্রিকালচার ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, মেঘনা ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ইউনিয়ন ব্যাংক, গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংক, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক ও এক্সিম ব্যাংক।

বিদেশি ব্যাংক গুলোর মধ্যে রয়েছে: আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিমের আওতায় বিনা জামানতে ঋণ দিচ্ছে।

ব্যাংক কত টাকা ঋণ দেয়

কুটির ও মাইক্রো উদ্যোগের উৎপাদনশীল ও সেবা শিল্প খাতে সর্বনিন্ম ২৫ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা। ক্ষুদ্র উদ্যোগের উৎপাদনশীল শিল্প খাতে সর্বনিন্ম ১ লাখ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩ কোটি টাকা।

সেবা শিল্প খাতে সর্বনিন্ম ২৫ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা। মাঝারি উদ্যোগের উৎপাদনশীল শিল্প খাতে ১ লাখ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫ কোটি টাকা এবং সেবা শিল্প খাতে সর্বনিন্ম ১ লাখ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা ঋণ নিতে পারবেন গ্রাহকরা।

শেষ কথা

আজকে আমরা জানলাম বাংলাদেশে বিনা জামানতে ঋণ দেয় কোন ব্যাংক গুলো এবং কত টাকা ঋণ (loan) দেয়। এই সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট লিখে জানাবেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *